Hot!

Other News

More news for your entertainment

সুপারস্টার শাকিব খানও 'চালবাজ' করলো

একটি মজার কথা বলি। অনেক বছর আগে 'রংবাজ' নামে একটি ছবি হয়েছিল। সেটি ছিল বাম্পার হিট। এরপর 'রঙিন রংবাজ' করলাম আমি। সেটি হল সুপারহিট। অতঃপর আমাদের সুপারস্টার শাকিব খান করলো 'রংবাজ', সেটি মোটামুটি চললো।
আমি শওকত জামিল সাহেবের 'চালবাজ' করেছিলাম একসময়। এখন সুপারস্টার শাকিব খানও 'চালবাজ' করলো। আমার 'চালবাজ' তেমন সফল না হলেও শুনছি শাকিবের 'চালবাজ' সুপারহিট। শুভকামনা 'চালবাজ' ও বাংলা চলচ্চিত্রকে। চলচ্চিত্রের পাশে থাকবেন সবাই।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে ইউএনএসসি'র প্রতিনিধি দল আসছে আজ

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ (ইউএনএসসি)’র ১৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল রোহিঙ্গাদের বিষয়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনার জন্য আজ শনিবার বাংলাদেশ সফরে আসছে। তারা জোরপূর্বক বাস্তচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিকদের দুঃখ-দুর্দশার বিষয়ে সরাসরি খোঁজ-খবর নেবেন এবং পরে তারা মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও এ বিষয়ে কথা বলবেন।
পেরুর প্রেসিডেন্ট গুস্টাভো মেজা-কাদরার নেতৃত্বে এই ইউএনএসসি প্রতিনিধিদলটি আজ বিকেলে বাংলাদেশে পৌঁছবে। তারা সোমবার সকালে মিয়ানমারের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র সাংবাদিকদের একথা জানান।
পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম ও মন্ত্রণালয়ের সচিব রিয়ার এডমিরাল (অব.) খুরশিদ আলম কক্সবাজারে প্রতিনিধিদলের সদস্যদের স্বাগত জানাবেন।
১৫ সদস্যের এই ইউএনএসসি প্রতিনিধিদলে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, ফ্রান্স ও চীন এই পাঁচ স্থায়ী সদস্যের প্রতিনিধিবৃন্দও রয়েছেন।
অপর সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন, বলিভিয়া, গিনি, ইথিওপিয়া, কাজাখস্তান, কুয়েত, লেদারল্যান্ডস, পেরু, পোল্যান্ড ও সুইডেনের স্থায়ী প্রতিনিধিগণ এবং আইভরি কোস্টের ডেপুটি স্থায়ী প্রতিনিধি।
প্রতিনিধিদলের সদস্যরা মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বিতাড়িত সেদেশের নাগরিক রোহিঙ্গাদের দুঃখ-দুর্দশা সম্পর্কে জানার জন্য তাদের সঙ্গে কথা বলবেন। গত বছরের আগস্ট মাসে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে সহিংসতার শিকার হয়ে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলায় আশ্রয় গ্রহণ করে।
এই সফরকালে টিম সদস্যরা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত সরকারি কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন শিবিরে রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তাদান ও অন্যান্য সেবা কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন দেশি-বিদেশি সংস্থার লোকদের সঙ্গেও কথা বলবেন।
ইউএনএসসি টিম সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবে। এরপর দু’দিনের সফরে মিয়ানমারের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে। সেখানে তারা মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলবেন।
পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ইউএনএসসি প্রতিনিধিদলের সম্মানে শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় হোটেল রেডিসন ব্লু ঢাকা ওয়াটার গার্ডেনে এক সংবর্ধনার আয়োজন করেছেন।
জানা গেছে, প্রতিনিধিদলের সদস্যরা কুতুপালং শরণার্থী শিবির পরিদর্শন করবেন এবং মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে যে সহিংসতার শিকার হওয়া বিষয়ে জানতে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলবেন।
পরে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার আবুল কালাম আজাদ বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থী সামলানোর সমস্যাসহ সার্বিক রোহিঙ্গা পরিস্থিতি সম্পর্কে ইউএনএসসি টিমকে অবহিত করবেন।
উল্লেখ্য, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সহিংসতার শিকার হয়ে গত বছরের ২৫ আগস্ট থেকে এ পর্যন্ত প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। এর আগেও তিন লক্ষাধিক রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে এসেছে এবং তারাও এখনো বাংলাদেশে অবস্থান করছে।

যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে যাচ্ছে পাকিস্তানের মাটিতে চীনের বিনিয়োগ


চীন পাকিস্তানে যেভাবে বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে সে ক্ষেত্রে আগামী দিনে যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে যাবে দেশটি।  চীনের ‘ওয়ান বেল্ট, ওয়ান রোড’ বাণিজ্যিক রুটের জন্যে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার যাচ্ছে পাকিস্তানে।  তাদের পরিকাঠামোকে আরও চাঙ্গা করতেই এমন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে মত বিশেষজ্ঞদের।
যুক্তরাষ্ট্র ও পাকিস্তানের মধ্যেকার সম্পর্কে টানাপোড়েন সৃষ্টি হওয়ার প্রেক্ষাপটে চীন ২০ কোটি জনসংখ্যার প্রতিবেশী পাকিস্তানের সঙ্গে ক্রমশ সম্পর্ক জোরদার করছে।  আর এজন্যে চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোর (সিপিইসি) নির্মাণের জন্য প্রায় ৫৫ বিলিয়ন ডলার ঋণ ও অর্থায়নের মাধ্যমে এই নতুন মাত্রার সূচনা ঘটে।
পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, পাকিস্তানে প্রত্যক্ষ মার্কিন বিনিয়োগ থেকে চলতি বছরের  পর্যন্ত দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫০৫ মিলিয়ন ডলার। অন্যদিকে প্রতিবেশী চীন থেকে এসেছে ১.৮২ বিলিয়ন ডলার।  পাকিস্তানের অর্থনীতিতে প্রায় এক দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থায় নিয়ে যেতে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে চাঙ্গা করার এই পরিকল্পনাটি পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের।
চীন রেল, বন্দর ও মহাসড়কের মাধ্যমে মধ্য এশিয়া ও ইউরোপে বাণিজ্যে জোয়ার সৃষ্টির লক্ষ্যে সিল্ক রোড নির্মাণের পরিকল্পনা করছে। চীন তার প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানে তার অবস্থান ক্রমাগত জোরদারও করছে।  গত তিন বছরে রেকর্ড ৭৭টি চীনা কোম্পানি পাকিস্তানে ঘাঁটি তৈরি করেছেন।  এমনকি, পাকিস্তানের একাধিক সংস্থায় টাকা ঢালছে চীন।  
পাকিস্তান রেল থেকে বিদ্যুৎ খাতে কয়েক কোটি ডলার বিনিয়োগ করছে চীন।  চীন যেভাবে পাকিস্তানের মাটিতে বিনিয়োগ করছে তাতে পাকিস্তানের মাটিতে ক্রমশ আধিপত্য কমছে আমেরিকার। অন্যদিকে, চীন যেভাবে পাকিস্তানের মাটিতে আধিপত্য বাড়াচ্ছে তাতে উদ্বেগ বাড়ছে ভারতেরও।  কারণ প্রতিকূল পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের পাশে যে চীন এসে দাঁড়াবে সেটাই স্বাভাবিক।

পাকিস্তানকে নিয়ে ফের 'বিস্ফোরক' মন্তব্য গৌতম গম্ভীরের


তিনি স্পষ্টবক্তা। কোনও বিষয়ে কিছু বলার থাকলে সরাসরি জানিয়ে দেন। বিশেষ করে যদি প্রসঙ্গটা তার নিজ দেশ ভারতকে নিয়ে হয়। কিছুদিন আগেই শহিদ আফ্রিদির টুইটের উত্তরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক মন্তব্যের পরে ফের পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন গৌতম গম্ভীর। 
তিনি জানিয়ে দিলেন, কেবল ক্রিকেট নয়, পাকিস্তানের সঙ্গে কোনও বিষয়েই সম্পর্ক রাখা উচিত নয় ভারতের। ভারত-পাক ক্রিকেট বন্ধ থাকা প্রসঙ্গে গৌতম খোলাখুলিভাবে বলেন, ‘‘পাকিস্তানের সঙ্গে কেবল ক্রিকেট খেলা বয়কট করলে হবে না। যদি ব্যান করতেই হয়, তাহলে অন্য ক্ষেত্রেও করা উচিত। সে ফিল্ম হোক, সঙ্গীত বা অন্য কিছু। যতদিন না দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে সম্পর্কের উন্নতি হচ্ছে, ততদিন পাকিস্তানের কাউকেই এদেশে পারফর্ম করতে দেওয়া উচিত নয়।’’
সদ্য দিল্লি ডেয়ারডেভিলস'র অধিনায়কত্ব ছাড়া গৌতম আরও বলেন, ‘‘সাম্প্রতিক অতীতে পাকিস্তানের সঙ্গে আমাদের আলোচনা হয়েছে নানা বিষয়ে। কিন্তু কোনও উল্লেখযোগ্য ফলাফল পাওয়া যায়নি। প্রত্যেক দেশেরই ধৈর্যের নিজস্ব সীমা আছে। প্রথমে অবশ্যই কথা বলা উচিত। কিন্তু তাতে কাজ না হলে কড়া ব্যবস্থা নিতেই হবে। বিষয়টা নিয়ে রাজনীতি করে কোনও লাভ নেই।’’
সম্প্রতি পাকিস্তানি ক্রিকেটার শহিদ আফ্রিদির সঙ্গে গৌতমের বাকবিতণ্ডার কারণ ছিল কাশ্মীর ইস্যু। বারবারই ভারতীয় সেনাদের প্রতি তার শ্রদ্ধার বিষয়টি সামনে এসেছে। এবার পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুলে গম্ভীর বুঝিয়ে দিলেন, তিনি পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের অস্থিরতা নিয়ে উদ্বিগ্ন। 







কোটা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য গেজেট আকারে প্রকাশের দাবি


কোটা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্য চলতি মাসের মধ্যে গেজেট আকারে প্রকাশের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানান তারা।
চলতি মাসের মধ্যে দাবি মানা না হলে মে মাস থেকে আবারও আন্দোলনে নামবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা।
কোটা সংস্কারের দাবিতে চলতি বছরের থেকে আন্দোলন শুরু করে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।সারা দেশেই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে। পরে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা বাতিলের পক্ষে মত দেন। এই ঘোষণার পর প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি স্থগিত করেন আন্দোলনকারী।

অল্পের জন্য ট্রিপল সেঞ্চুরি হলো না লিটন দাসের

সময়ের সাথে সাথে রানমেশিন হয়ে উঠছেন লিটন দাস। জাতীয় দলের এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ঘরোয়া লিগে সেঞ্চুরির পর সেঞ্চুরি করে যাচ্ছেন। এবার হাঁকালেন ডাবল সেঞ্চুরি। শুধু ডাবল নয়; বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ট্রিপল সেঞ্চুরি মিস করেছেন অল্পের জন্য। আজ বৃহস্পতিবার বিসিএলের শেষ রাউন্ডের তৃতীয় দিনে রাজশাহীতে পূর্বাঞ্চলের হয়ে মধ্যাঞ্চলের বিপক্ষে ২৭৪ রানে আউট হয়েছেন  লিটন।
১২৫ বলে ১৩৯ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করেছিলেন লিটন। দিনের শুরুতে বেশি আগ্রাসী ছিলেন আগের দিনের আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান আফিফ। প্রথম ঘণ্টায় লিটন ছিলেন একটু ধীরস্থির। সময়ের সাথে সাথে তার ব্যাটেও আবার এসেছে রানের জোয়ার। লাঞ্চের আগের ওভারে বাঁহাতি স্পিনার ইলিয়াস সানিকে বাউন্ডারি মেরে মাত্র ১৯০ বলে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরি স্পর্শ করেন। 
লাঞ্চের পর মধ্যাঞ্চলের ডাবল সেঞ্চুরিয়ান অনিয়িমিত বোলার আব্দুল মজিদের বলে সিঙ্গেল নিয়ে ক্যারিয়ারে প্রথমবার স্পর্শ করেন আড়াইশ। আফিফের সঙ্গে জুটির ট্রিপল সেঞ্চুরি হওয়ার সুযোগ থাকলেও সানির বলে ক্যারিয়ার সেরা ১৪২ করে আউট হয়ে যান আফিফ। চতুর্থ উইকেট জুটি ভাঙে ২৯৮ রানে। লিটনও আড়াইশর পর খেলছিলেন সাবধানে। শেষ পর্য্নত সেই সানির বলেই এলবিডব্লিউ হয়ে শেষ হয় তার ৩৫ চার ও ২ ছক্কায় ২৯৩ বলে ২৭৪ রানের অসাধারণ ইনিংস।
বাংলাদেশের প্রথম প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে একমাত্র ট্রিপল সেঞ্চুরিয়ান রকিবুল হাসান। ২০০৭ সালের মার্চে জাতীয় লিগে বরিশালের হয়ে অপরাজিত ৩১৩ রান করেছিলেন রকিবুল। এর আগে ট্রিপল সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্ত থেকে ফিরে গেছেন মার্শাল আইয়ুব আর মোসাদ্দেক হোসেন, নাসির হেসেনরা। গত ডিসেম্বরে জাতীয় লিগে ২৯৫ রানে আউট হন নাসির হোসেন। 

খালেদার মুক্তির দাবিতে ঢাকায় ছাত্রদলের বিক্ষোভ


বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ করেছে দলটির ছাত্র সংগঠন ছাত্রদল। 
বৃহস্পতিবার দুপুরে হাতিরপুল এলাকায় পূর্ব ঘোষিত এই কর্মসূচি পালন করে সংগঠনের কয়েকশ' নেতাকর্মী ও সমর্থক।
জানা গেছে, রাজধানীর মগবাজার চৌরাস্তা থেকে এই কর্মসূচি হওয়ার কথা থাকলেও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতির কারণে স্থান পরিবর্তন করে বাংলামোটরে নিয়ে যাওয়া হয়। ইস্টার্ন প্লাজার সামনের সড়ক হয়ে হাতিরপুল বাজারের কাছে গিয়ে মিছিলটি শেষ হয়। 
ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন ও সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান বিক্ষোভ মিছিলটির নেতৃত্ব দেন।

যে কারণে শাকিবের চেয়ে জিৎকে বেশি পছন্দ ফারিয়ার


চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার শুরু করলেও এখনো ঢালিউডের শীর্ষ নায়ক শাকিব খানের সঙ্গে কাজ করা হয়নি নুসরাত ফারিয়ার। মুক্তি পাওয়া তার সর্বশেষ ছবি 'ইন্সপেক্টর নটি কে' সহশিল্পী ছিল জিৎ। এর আগেও দুটি ছবিতে কলকাতার অভিনেতা জিতের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন ফারিয়া।
শাকিব না জিৎ কোন অভিনেতা প্রিয়- জানতে চাইলে সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে নুসরাত ফারিয়া বলেন, জিৎ। শাকিব ভাইয়ের সাথে আমার তেমন কোনো যোগাযোগ নেই। তার সাথে কোনো কাজও হয়নি। একবার জাজ মাল্টিমিডিয়ার প্রোগ্রামে (চলচ্চিত্র প্রযোজনা ও পরিবেশক প্রতিষ্ঠান) তার সাথে দেখা হয়েছিল। সেখানে আমাকে শাকিব ভাই জিজ্ঞেস করেছিল, 'কাজ কেমন চলছে- সব ঠিকঠাক কি না?' ওই একবারই। এরপরে আর দেখা হয়নি।

খালেদার মুক্তির দাবিতে নয়াপল্টনে বিএনপির মানববন্ধন


র্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন কমসূচি পালন করছে দলটি।
বুধবার বেলা ১১টার দিকে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে ঘণ্টাব্যাপী এই মানববন্ধন শুরু হয়েছে। 
এদিকে, মানববন্ধনকে ঘিরে এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য মোতায়েন রয়েছে।
প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন ঢাকার ৫ম বিশেষ জজ আদালত। এরপর থেকেই পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

জন্মদিনে শচীনকে অস্ট্রেলিয়ার 'অপমান'!


শচীন রমেশ টেন্ডুলকার। ভারতের এ কিংবদন্তি ক্রিকেটারকে বলা হয়ে থাকে 'ক্রিকেট ইশ্বর'। গতকাল ছিল এ ক্রিকেটারের ৪৫তম জন্মদিন। কেক কেটে জন্মদিন উদযাপন করেছেন শচীন। কিন্তু নিজের জন্ম দিনে অজি ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে তিরস্কার পেয়েছে এ ক্রিকেটার।
অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের করা এক টুইটেই তা প্রকাশ পেয়েছে। মাস্টার ব্লাস্টারকে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার এমন কাণ্ডে সমালোচনার ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।
ক্রিকেটের দুই ফরম্যাটে ১০০ সেঞ্চুরি করা শচীনের জন্মদিনে মঙ্গলবার ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের একটি পুরনো ভিডিও পোস্ট করেছে অজি বোর্ড। যেখানে শচীনের বিপক্ষে বল করছেন অজি পেসার ড্যামিয়েন ফ্লেমিং। আর অজি তারকার সেই ডেলিভারিতেই বোল্ড শচীন। 
ভিডিওর নিচে লেখা- ‘কিছু সুবর্ণ মুহূর্ত। হ্যাপি বার্থডে ড্যামিয়েন ফ্লেমিং।’ আর এই পোস্ট দেখেই অজিদের ওপর চড়াও হয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটভক্তরা।
ফ্লেমিংকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে একই দিনে জন্মানো শচীনের আউটের ভিডিওটি ব্যবহার বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মত শচীন সমর্থকদের। তাদের দাবি- মাস্টার ব্লাস্টারকে ইচ্ছাকৃতভাবে অপমান করতেই এমনটি করেছে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড।
ফ্লেমিং ও শচীন সমসাময়িক ক্রিকেটার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মঞ্চে বহুবার মুখোমুখি হয়েছেন তারা। শচীনকে সাতবার আউট করে প্যাভিলিয়নে পাঠিয়েছেন ফ্লেমিং। শচীনও কম যাননি। ফ্লেমিংয়ের সুইংকে বাউন্ডারির বাইরে পাঠিয়েছেন অনেকবার। এমনকি ১৯৯৮ সালে শারজায় সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ভারতকে সিরিজ জিতিয়েছিলেন মাস্টার ব্লাস্টার।

ভারতের মহারাষ্ট্রে পুলিশের অভিযানে ১৯ নারীসহ ৩৭ মাওবাদী নিহত

রতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের একটি বনে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধের পর অন্তত ৩৭ মাওবাদী বিদ্রোহীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ১৯ জন নারী। মহারাষ্ট্র ও পার্শ্ববর্তী ছত্তিশগড় রাজ্যের সীমান্তবর্তী গাদচিরোলি জেলার গভীর বনে একটি নদীর পাড়ে একদল মাওবাদী বিদ্রোহী পুলিশ কমান্ডোদের চোরাগোপ্তা আক্রমণের মুখে পড়ে। এখানে দুপক্ষের মধ্যে প্রায় চার ঘন্টা ধরে বন্দুকযুদ্ধ হয় বলে মহারাষ্ট্র পুলিশ জানিয়েছে।
পুলিশের হামলায় প্রাথমিকভাবে নারী ও পুরুষ মিলিয়ে ১৬ মাওবাদী বিদ্রোহী নিহত হন।
এরপর মাওবাদী বিদ্রোহী নদী ধরে পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের হামলার মুখে পড়ে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এতে অজ্ঞাত সংখ্যক মাওবাদী গুলিবিদ্ধ হয়। ঘটনার পরদিন থেকে ইন্দ্রাবতী নদীতে নিহত আরও বিদ্রোহীর লাশ ভেসে উঠতে শুরু করে।  সকালেও পুলিশ নদীতে ভেসে ওঠা লাশ উদ্ধার করছিল।
এ ঘটনার পর পুলিশ একই জেলায় আরও ছয় মাওবাদী বিদ্রোহীকে হত্যা করে। নিহতদের মধ্যে চার নারী বিদ্রোহী রয়েছেন।
মহারাষ্ট্র পুলিশের মহাপরিচালক সতীশ মাথুর জানিয়েছেন, নিহতের মোট সংখ্যা ৩৭ জনে দাঁড়িয়েছে, কিন্তু তা আরো বাড়তে পারে।
গত মাসে ছত্তিশগড়ের সুকমা জেলায় মাওবাদীদের পেতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে নয় পুলিশ নিহত হয়েছিল। সে ঘটনার পর পুলিশের বড়সড় অভিযান এটি।

টি-টোয়েন্টিতে সাকিবের ৩০০!

ইতিহাসটা আরো আগেই হয়ে যেতে পারতো। কিন্তু আগের দুই ম্যাচে তা আর হলো না। অবশেষে রোহিত শর্মাকে আউট করেই এলো আরাধ্য মুহূর্ত, টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের মাত্র দ্বিতীয় বোলার হিসেবে ৩০০ উইকেট ও ৪০০০ রানের ডাবল হয়ে গেল সাকিবের। আইপিএলের চলতি আসরে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে সানরাইর্জাস হায়দরাবাদের হয়ে এমন রের্কড গড়েন বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার। বিশ্বে এই কীর্তি আর আছে কেবল ডোয়াইন ব্রাভোর।
পরের তালিকাগুলোতে আছেন শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্গা (৩৪৮), ক্যারিবিয়ান সুনীল নারাইন (৩২৫) এবং পাকিস্তানের শহীদ আফ্রিদি (৩০০)।
সাকিবের রেকর্ড করার ম্যাচে অবিশ্বাস্য এক জয় পেয়েছে তার দল সানরাইজার্স হায়দারাবাদ। মুস্তাফিজের দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়েছে তারা ৩১ রানে।
ম্যাচটা ছিল লো স্কোরিং। আগে ব্যাট করা সানরাইজার্স হায়দারাবাদ ১৮.৪ ওভারে মাত্র ১১৮ রান করে অলআউট হয়ে যায়। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের মুস্তাফিজুর রহমান ৩.৪ ওভার বল করে মাত্র ১৮ রান ব্যয় করে একটি উইকেট তুলে নেন।
জবাবে মাত্র ৮৭ রানে অলআউট হয়ে যায় মুম্বাই। দলের পক্ষে রশীদ খান ৪ ওভারে মাত্র ১১ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নেন।

ব্রিটেনে রাজনৈতিক আশ্রয়ে তারেক

তারেক রহমান কিভাবে যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন জানতে চাইলে কোনো উত্তর দেন না ব্রিটিশ কর্মকর্তারা। সাংবাদিক, সরকারের প্রতিনিধি সবার কাছেই তাঁরা বরাবরই ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষা আইনের দোহাই দিয়ে এসেছেন। অবশেষে বিএনপিই প্রথমবারের মতো স্বীকার করল, তাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যুক্তরাজ্যে রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়েছেন। বাংলাদেশি পাসপোর্ট ফেরত দেওয়া এবং নাগরিকত্ব সমর্পণ নিয়ে বিতর্কের মধ্যে এক দিন আগেই তারেক রহমানের পাসপোর্ট জমা দেওয়ার তথ্য চ্যালেঞ্জ করে প্রমাণ দাবি করেছিল বিএনপি। তবে দলটি স্বীকার করেছে যে রাজনৈতিক আশ্রয় নেওয়ার জন্যই তারেক রহমান তাঁর বাংলাদেশি পাসপোর্ট জমা দিয়েছেন।
তবে সেই পাসপোর্ট জমা দেওয়াকে নাগরিকত্ব প্রত্যাহার বলে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম যে বক্তব্য দিয়েছেন, বিএনপি তাকে ‘বেআইনি’ অভিহিত করেছে। এ ছাড়া তারেকের পাসপোর্ট-সংক্রান্ত ব্রিটিশ হোম অফিসের (স্বরাষ্ট্র দপ্তরের) চিঠিতে ১৩টি বড় ধরনের ভুল থাকার কথা দাবি করে একে ‘রহস্যময়’ বলে উল্লেখ করেছে বিএনপি।
অন্যদিকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, চিঠিতে ভুল থাকার বিষয়ে বিএনপি ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দপ্তরে অভিযোগ দিতে পারে। বিদেশে রাজনৈতিক আশ্রয় পেতে গেলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির মূল দেশের নাগরিকত্ব ছাড়তে হয় বলে দাবি করলেও তিনি স্বীকার করেছেন, ‘রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকা, পাসপোর্ট না থাকা আর নাগরিকত্ব না থাকা—এগুলোকে এক বিষয় বলে তিনি দাবি করবেন না। তাঁর মতে, এখানে আইনি ব্যাখ্যার সুযোগ আছে।’
তারেক রহমানের পাসপোর্ট ও নাগরিকত্ব থাকা না থাকা নিয়ে বড় দুটি রাজনৈতিক দলের পাল্টাপাল্টি চ্যালেঞ্জের মধ্যে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বলেছেন, ‘আমরা সবাই জানি যে তারেক রহমান সাহেব বিদেশে চিকিৎসার জন্য গেছেন। তারপর এখানে দেশে বর্তমান সরকার তাঁর বিরুদ্ধে যেভাবে মামলা-মোকদ্দমা এবং বিনা বিচারে সাজা দিচ্ছে সে কারণে তিনি অ্যাসাইলাম (রাজনৈতিক আশ্রয়) চেয়েছেন এবং তাঁকে সেটা দেওয়া হয়েছে। অ্যাসাইলামের সময় নিয়ম অনুযায়ী পাসপোর্ট জমা দিতে হয়।’
তারেক রহমানের পাসপোর্ট বিতর্ক সামনে আসার প্রেক্ষাপটে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, তারেক রহমান যুক্তরাজ্যে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করেছিলেন এবং এক বছরের মধ্যেই সেটি গৃহীত হয়েছে।
ফখরুলের দাবি, সরকার ও সরকারি দলের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বক্তৃতা-বিবৃতিতে এটা স্পষ্টতই প্রমাণিত হয় যে বাংলাদেশে তারেক রহমানের জীবন নিরাপদ নয়। এ অবস্থায় তারেক রহমান বিশ্বের অসংখ্য বরণ্য রাজনীতিবিদ, সরকারবিরোধী বিশিষ্ট ব্যক্তির মতোই সাময়িকভাবে বিদেশে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন এবং সংগত কারণেই তা পেয়েছেন।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, যুক্তরাজ্যের প্রচলিত আইন অনুযায়ী পাসপোর্ট জমা রেখে তারেককে ‘ট্রাভেল পারমিট’ দেওয়া হয়েছে। যখনই তিনি দেশে ফেরার মতো সুস্থ হবেন তখনই তিনি দেশের অন্যান্য নাগরিকের মতোই পাসপোর্টের জন্য আবেদন জানাবেন এবং তা অর্জন করতে পারবেন। সেটি তিনি ফেরত পাবেন।
তারেক রহমানের পাসপোর্ট সমর্পণ করা নিয়ে সম্প্রতি বিতর্ক শুরু হয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলমের বক্তব্য ঘিরে। লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শাহরিয়ার আলম বলেছিলেন, ‘লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে সবুজ পাসপোর্ট জমা দিয়ে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বর্জন করেছেন তারেক রহমান।’ এরপর সকালে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী ওই বক্তব্যকে নির্জলা মিথ্যা দাবি করে বলেন, ‘তারেক রহমান যদি বাংলাদেশি পাসপোর্ট লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে জমা দিয়ে থাকেন তাহলে সেটি প্রদর্শন করুন।’ রিজভী পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ারও হুমকি দেন। সেদিনই পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এবং তাঁকে উদ্ধৃত করে খবর প্রকাশের দায়ে কালের কণ্ঠ ও বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদককে আইনি নোটিশ পাঠানোর কথা সাংবাদিকদের জানায় বিএনপি। তবে এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম সংবাদ সম্মেলন করে তারেক রহমানের পাসপোর্টের প্রতিলিপি এবং তারেক, তাঁর স্ত্রী জোবাইদা রহমান ও মেয়ে জাইমা জারনাজ রহমানের পাসপোর্ট ব্রিটিশ হোম অফিসের (স্বরাষ্ট্র দপ্তর) মাধ্যমে বাংলাদেশ হাইকমিশনে ফেরত দেওয়াসংক্রান্ত চিঠির প্রতিলিপি সাংবাদিকদের হাতে তুলে দেন।
এবার চিঠি নিয়ে প্রশ্ন বিএনপির : তারেকের পাসপোর্ট জমা দেওয়ার কথা স্বীকার করলেও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সরবরাহ করা ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দপ্তরের চিঠির সত্যতা নিয়ে গতকাল প্রশ্ন তুলেছে বিএনপি। মির্জা ফখরুল সংবাদ সম্মেলনে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দপ্তরের চিঠিতে ১৩টি বড় ধরনের ভুল পাওয়ার তথ্য তুলে ধরে বলেন, এমনটি ব্রিটিশ সরকারের পক্ষে করা খুব অস্বাভাবিক। তিনি বলেন, চিঠিতে প্রথমে লিখেছে দপ্তরের নাম। লিখেছে, ‘ইমিগ্রেশন অ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট’। ফখরুলের দাবি, এটির আসল নাম ইমিগ্রেশন কমপ্লায়েন্স অ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট। ঠিকানায় কমা, ফুল স্টপ নেই। বাংলাদেশ হাইকমিশনকে লেখা হয়েছে দূতাবাস।
হাইকমিশনের ঠিকানা হিসেবে কুইন্সগেটের বানানও ভুল আছে বলে দাবি করেন ফখরুল। ফোন ও ফ্যাক্স নম্বরগুলোও অপ্রয়োজনীয়ভাবে বোল্ড করে লেখা হয়েছে। এ ছাড়া এমন টাইপ ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দপ্তর ব্যবহার করে না। তিনি বলেন, “ডিয়ার সারস (উঊঅজ ঝওজঝ), এটা অবশ্যই হবে উঊঅজ ঝওজ। চিঠির ওপরে চারটি পাসপোর্টের কথা লেখা আছে। বলা হয়েছে, ‘রিটেনশন’।”
চিঠির শেষ দিকে ভুলের কথা তুলে ধরে বিএনপি মহাসচিব বলেন, “এরপরে থ্যাংক ইউর পরে কোনো ফুল স্টপ নেই। ‘ণড়ঁত্ং ঋধরঃযভঁষষু’-এর ‘ঋ’টাও বড় হাতের। সেটা কখনো ব্রিটিশরা লিখবে না এবং যিনি সই করেছেন তাঁর কোনো নাম নেই।”
ফখরুল বলেন, ‘আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের (তারেক রহমানের) আইনজীবী এটা সম্পর্কে ডিটেইলস জানতে চেয়েছেন। জানলে আমরা পরে আপনাদের জানাব।’ তিনি আরো বলেন, ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দপ্তর থেকে তারেক রহমানের পাসপোর্ট যদি লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে পাঠানো হয়ে থাকে এবং পাঠানো হয়েছে বলে যে তথ্য প্রচার করা হচ্ছে তাতে কোনো আইন বা যুক্তিতে প্রমাণিত হয় না যে তিনি বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পরিত্যাগ করেছেন। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে যে আইনি নোটিশ দেওয়া হয়েছে, জনগণ তার জবাব জানার জন্য অপেক্ষা করছে।
তারেক রহমানের আইনজীবী ও দলের আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘তারেক রহমান যুক্তরাজ্যে যে অ্যাসাইলাম সিক (রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা) করেছেন, সেই অ্যাসাইলামে ব্রিটিশ আইনের ১৭ ধারা মোতাবেক উল্লেখ আছে যে পাসপোর্ট অথবা গুরুত্বপূর্ণ  ডকুমেন্ট কারো কাছে যাবে না। শুধু যিনি হোল্ডার (মালিক) তাঁর কাছে যাবে। অন্য কোনো থার্ড পার্টির কাছে যাবে না। অতত্রব, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দাবি—পাসপোর্ট বাংলাদেশ হাইকমিশনে জমা দেওয়া হয়েছে, এটা রহস্যজনক ও সন্দেহজনক। ব্রিটিশ আইন অনুযায়ী তারেক রহমানের পাসপোর্টটা বাংলাদেশ হাইকমিশনে যাওয়ার কথা নয়।’
রাজনৈতিক আশ্রয়ের বিষয়টি গোপন রাখতে চেয়েছিল বিএনপি : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, অন্য দেশে রাজনৈতিক আশ্রয় পেতে গেলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির মূল দেশের নাগরিকত্ব ছাড়তে হয়। তিনি বলেন, ‘আমার ক্লেইমের (দাবির) মূল বিষয় নাগরিকত্ব ছিল না, ছিল পাসপোর্ট ফেরত দেওয়া। কিন্তু বিএনপির নেতার কথায়ই এখন প্রমাণ হচ্ছে যে তিনি রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন। তাই নাগরিকত্বের কথাটি আমি এখন আরো জোরালোভাবে দাবি করব।’
পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘অ্যাসাইলাম সিকাররা (আশ্রয়প্রার্থীরা) রাষ্ট্রবিহীন বা স্টেটলেস থাকেন, তাঁরা যে  দেশের লোক সে দেশে বাঞ্ছিত নন বা সে দেশে যেতে চান না, এ কারণে তাঁরা পাসপোর্ট সমর্পণ বা হ্যান্ডওভার করেন। তারেক রহমান ঠিক তাই করেছেন।’
প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদেশে তারেক রহমানের কাছে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব প্রমাণের একমাত্র দলিল ছিল তাঁর বাংলাদেশি পাসপোর্ট। সেটিই তিনি ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দপ্তরে ফেরত দিয়েছেন। তিনি দাবি করেন, ‘ব্যাপারটা বিএনপি গোপন করতে চাইছিল। কারণ তারা সত্য স্বীকার করতে চায় না।’
‘রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকা, পাসপোর্ট না থাকা আর নাগরিকত্ব না থাকা—এগুলো এক বিষয় কি না জানতে চাইলে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বিবিসিকে বলেন, ‘না, আমি সেটা দাবি করব না। এখানে আইনি ব্যাখ্যার সুযোগ আছে।’ পাল্টা প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, ‘তাহলে তারেক রহমানের আইডেনটিটি (নাগরিকত্ব পরিচয়) কী? আমার নতুন প্রশ্নটি হলো, তিনি চিকিৎসার জন্য বাংলাদেশি পাসপোর্ট, ভিসা নিয়ে যুক্তরাজ্যে গিয়েছিলেন। কিন্তু এখন তিনি রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন। সেই পাসপোর্ট ভিসা আর তিনি ব্যবহার করছেন না।’ তিনি আরো বলেন, ‘রাজনৈতিক আশ্রয় নিতে গেলেই তিনি যে দেশ থেকে গিয়েছেন সেই দেশের সব কিছু সারেন্ডার করতে হয়। সেই দেশের নাগরিক হিসেবে আপনি তা আর ক্লেইম করতে পারেন না। তারেক রহমান ঠিক তাই করেছেন।’
তারেক রহমানের পাসপোর্ট লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের কাছে হস্তান্তর বিষয়ে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র দপ্তরের চিঠি প্রকাশ করা কতটা যৌক্তিক জানতে চাইলে শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘১০০ ভাগ  যৌক্তিক। কারণ বিএনপিই চ্যালেঞ্জ করেছিল যেন আমি এটা প্রকাশ করি। এ চিঠি গোপনীয় কিছু নয়।’

মেহেরপুরে 'দুপক্ষের গোলাগুলিতে' নিহত ১

মেহেরপুর শহরের ব্র্যাক অফিসসংলগ্ম মাঠে সন্ত্রাসীদের 'দুপক্ষের গোলাগুলিতে' খাদেমুল হোসেন নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। পুলিশের দাবি, নিহত খাদেমুল একজন শীর্ষ সন্ত্রাসী। রাত সাড়ে ৩টার দিকে এ 'গোলাগুলির' ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটারগান, তিনটি হাত বোমা ও একটি দেশি অস্ত্র উদ্ধার করেছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।
নিহত খাদেমুল হোসেন শহরের শিশুবাগান পাড়ার রেজাউল হকের ছেলে। তার বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতিসহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
মেহেরপুর সদর থানার ওসি রবিউল ইসলাম বলেন, রাত সাড়ে ৩টার দিকে গোলাগুলির শব্দ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে খাদেমুলকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এর আগে পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে খাদেমুলকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ওসি আরো বলেন, খাদেমুলের বিরুদ্ধে মেহেরপুর সদরসহ বিভিন্ন থানায় হত্যা, ডাকাতিসহ একাধিক মামলা রয়েছে। তিনি পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। 

সেই রাজকীয় বিয়ের নিমন্ত্রণ পেলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া


এবার রাজকীয় বিয়ের নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে চলেছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। শোনা যাচ্ছে, সম্ভবত ১১মে সেন্ট চর্চ চ্যাপেলে বসবে হ্যারি-মেগানের বিয়ের আসর ৷ আর সেই রয়্যাল বিয়েতে উপস্থিত থাকবেন প্রিয়াঙ্কা  
মেগান মার্কলের ঘনিষ্ঠ বন্ধু হিসেবে এই আমন্ত্রণপত্র পেয়েছেন প্রিয়াঙ্কা ৷ ক্যালিফোর্নিয়ায় অবসর যাপন থেকে গার্লস ডে আউট, সব জায়গাতেই প্রিয়াঙ্কার সঙ্গী মেগান ৷ খুব স্বাভাবিকভাবেই তার বিয়েতে নেমন্তন্ন পেলেন নায়িকা ৷
সদ্যই খুশির খবর এসেছে ব্রিটেনের রাজ পরিবারে ৷ তৃতীয়বারের জন্য বাবা-মা হয়েছেন ডিউক এবং ডাচেস অব কেমব্রিজ ৷ এক পুত্র এবং এক কন্যার পর ফের পুত্র সন্তান এসেছে প্রিন্স উইলিয়ম এবং কেট মিডলটনের সংসারে ৷ কেটের গর্ভবস্থার কারণে হ্যারি-মেগানের বিয়ের তারিখও বেশ কিছুটা পিছিয়ে গিয়েছিল ৷ তবে এবার সব বাধা পেরিয়ে চার হাত এক হতে চলেছে৷ 
সেই বিয়েতে মেগানের ব্রাইডমেডস হবেন প্রিয়াঙ্কা। এই বলিউড ডিভা নিজেই জানিয়েছেন এই খবর ৷ হ্যারি এবং মেগানের একটি ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘কনগ্র্যাচুলেশন মাই গার্ল! এ ভাবেই সংক্রামক হাসি তুমি সারা জীবন হাসতে থাকো ৷’

কিমকে নিয়ে নতুন করে যা বললেন ট্রাম্প


উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যে কথার যুদ্ধ শুরু থেকেই। একে অন্যকে নিয়ে কটু মন্তব্য করতেও ছাড়েননি। তবে সবই হয়েছে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে। আর এবার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন উন। সম্মতি দিয়েছেন পারস্পরিক বৈঠকের। আর এতেই বরফ গলতে শুরু করেছে দুই নেতার মধ্যকার সম্পর্কের। এই প্রথমবারের মতো কিমের প্রশংসা করেছেন ট্রাম্প। তা আবার নিজে টুইট করে। টুইটার বার্তায় ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ‘আমরা কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছি এবং সেটা খুব শিগগিরই হবে। আমাদেরকে সরাসরি বলা হয়েছে, তারা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বৈঠকে বসতে চায়। আমাদের অনেক ভালো আলোচনা হয়েছে। আমরা যা দেখছি তার ওপর ভিত্তি করে আমি মনে করি, কিম জং উনের সত্যিকারার্থে অনেক খোলা মনের এবং অনেক সম্মানের যোগ্য।’
এর আগে গত সপ্তাহে ট্রাম্প বলেছিলেন, আলোচনা সফল না হলে তিনি উনের সঙ্গে বৈঠক থেকে বের হয়ে আসবেন।
গত বছর একাধিক টুইটে কিমকে খোঁচা দিয়ে ট্রাম্প ‘রকেটম্যান’ বলেছিলেন। এর জবাবে উত্তর কোরিয়াও ট্রাম্পকে ‘বৃদ্ধ অথর্ব’ বলে খোঁচা দিয়েছিল।

জাতীয় পুরস্কার নিয়ে জালিয়াতি, বিচার দাবি চলচ্চিত্র পরিবারের


নিয়তি' ছবিতে নৃত্য পরিচালকের পুরস্কার নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় থামছেই না। মুক্তি পাওয়া ওই ছবিতে নৃত্য পরিচালনার জন্য জাতীয় পুরস্কার দেয়া হয়েছে হাবিবকে। কিন্তু তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তিনি ওই ছবিতে কাজই করেননি। আর তিনি যে ছবিতে কাজ করেননি তার জন্য পুরস্কারও নিতে চান না।
ওই ইস্যুতে শনিবার এফডিসিতে পরিচালক সমিতির কার্যালয়ে বৈঠক করে ১৮ সংগঠনের সমন্বয়ে গড়া চলচ্চিত্র পরিবার। তাতে হাবিবও উপস্থিত ছিলেন। আরও ছিলেন চিত্রনায়ক ফারুক, জায়েদ খান, পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার, বদিউল আলম খোকন, জ্যেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক মাসুম বাবুল প্রমুখ।
বৈঠকে  চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক চিত্রনায়ক ফারুক বলেন, চলচ্চিত্রে একটা দেশের সর্বোচ্চ পুরস্কার হলো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। একটা ছেলে জানেই না তবুও নৃত্য পরিচালক হিসেবে তার নাম দেয়া হয়েছে। ভারতীয় নৃত্য পরিচালক দিয়ে কাজ করিয়ে হাবিবের নাম দেয়া হয়েছে। কারণ ভারতীয় কাউকে দিয়ে কাজ করলে ওয়ার্ক পারমিট থাকতে হয়। এই ধরনের জালিয়াতির সঙ্গে যারা জড়িত তাদের আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে।

রহস্য কাটেনি অলড্রিনের 'ভিনগ্রহী যানের'


চাঁদের মাটিতে মানুষের প্রথম পা রাখার ৪৯ বছর কেটে গেছে। কিন্তু এখনও সমাধান হয়নি একটি রহস্যের। নিল আর্মস্ট্রংয়ের পর দ্বিতীয় মানুষ হিসেবে চাঁদের মাটিতে পা রেখে ছিলেন এডুইন অলড্রিন। 
পা রাখার পরই এডুইন অলড্রিন দাবি করেছিলেন অ্যাপোলো ১১ যানে করে চাঁদের দিকে যাওয়ার সময় তারা একটি রহস্যময় উড়ন্ত বস্তুকে দেখেছিলেন- যা ভিনগ্রহীদের মহাকাশযান বলেই তাদের বিশ্বাস।
আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম 'মিরর'-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইয়োতে অবস্থিত 'দ্য ইন্সটিটিউট অব বায়ো অ্যাকোয়াস্টিক বায়োলজি' অলড্রিন ও তার সঙ্গীদের 'ভয়েস প্যাটার্ন' পরীক্ষা করে দেখেছেন তারা মোটেই মিথ্যা বলছেন না- যা বলছেন সেটা তারা বিশ্বাস করেই বলছেন।
নিশ্চিতভাবেই এ ঘটনা ফ্লাইং সসার বা ভিনগ্রহীদের যান দেখার দাবিকে আরও জোরালো করে তুলবে। 'ফার্স্ট অন দ্য মুন : দ্য আনটোল্ড স্টোরি' নামের একটি ডকুমেন্ট্রিতে অলড্রিন জানিয়েছিলেন, তিনি ও তার সঙ্গীরা একটি রহস্যসয় উড়ন্ত যান দেখেছিলেন চাঁদে যাওয়ার পথে। পরে অলড্রিন জানিয়েছিলেন, তিনি ভিনগ্রহীদের অস্তিত্বে বিশ্বাস করেন। তাদের বক্তব্যকে পরীক্ষা করে দেখা গেছে তাদের দাবি সত্যি।
অলড্রিন অবশ্য জানিয়েছেন, যুক্তি দিয়ে তিনি তার দাবিকে ব্যাখ্যা করতে পারবেন না। তবে তিনি সত্যিই মহাকাশে অজানা উড়ন্ত বস্তুকে ভেসে বেড়াতে দেখেছিলেন।

ফেসবুক থেকে করা যাবে মোবাইল রিচার্জ


কাজের প্রয়োজনে অনেক হয়তো আপনি বাইরে সময় দেন। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় মোবাইলে টাকা থাকে না। ফলে প্রয়োজনের সময় আপনি কথা বলতে পারেন না। আবার হাতের কাছে কোনো রিচার্জের দোকানও হয়তো খুঁজে পাচ্ছেন না। তখন কি করবেন।
তবে এর বিকল্পও কিন্তু আছে। আপনি জেনে খুশি হবেন যে ফেসবুক থেকে মোবাইল রিচার্জ করা যায়। শুনে হয়তো অবাক হচ্ছেন। তবে ঘটনা কিন্তু সত্যি। ফেসবুকের মাধ্যমে যেভাবে করবেন মোবাইল রিচার্জ?
ফেসবুক অ্যাপটি প্রথমে খুলতে হবে। তারপর ফেসবুক হোমপেজের উপরে একেবারে ডানদিকে নোটিফিকেশন আইকনের পাশের আইকনটিতে ক্লিক করতে হবে। তার মধ্যেই ‘মোবাইল রিচার্জ’ বলে একটি অপশন থাকবে। ফেসবুক অ্যাপটি আপডেট করলেই এই রিচার্জ অপশনটি পাওয়া যাবে।
সম্প্রতি বেশকিছু ফিচার এনে চমক দিয়েছিলো ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। কয়েকদিন আগেই 'ফেসবুক মার্কেটপ্লেস' বলে ফিচার আনে জনপ্রিয় এই সোশ্যাল অ্যাপ। এবার গ্রাহকদের সুবিধার্থে আরও একটি নতুন ফিচার এনে চমক দিল ফেসবুক।

এফএ কাপের ফাইনালে চেলসিকে পেল ম্যানইউ


এফএ কাপ। আনুষ্ঠানিকভাবে এটি 'দ্য ফুটবল এসোসিয়েশন চ্যালেঞ্জ কাপ' নামে পরিচিত। ইংলিশ ফুটবেলর ঘরোয়া লিগের একটি নকআউট পদ্ধতির টুর্নামেন্ট। আর এবারের টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও চেলসি।  রাতে সাউদাম্পটনকে ২-০ গোলে হারিয়ে এফএ কাপের ফাইনালে উঠে গেলবারের রানারর্সআপ চেলসি। এদিন ব্লুজদের হয়ে গোল দু’টি করেছেন অলিভিয়ে জিরুদ ও আলভারো মোরাতা।
এদিন ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে প্রথমার্ধের খেলায় কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায়নি চেলসি। তবে দ্বিতীয়ার্ধের একেবারে শুরুতেই সফলতা ধরা দেয় আন্তেনিও কন্তের শিবিরে। ম্যাচের বয়স তখন ৪৬ মিনিট। সেস ফ্যাব্রিগাসের উঁচু করে এগিয়ে দেওয়া বল ডি-বক্স সীমানায় বাঁ-পায়ের সামনে বাড়ান এডেন হ্যাজার্ড। সেখান থেকে ডান পায়ের টোকায় জালে বল জড়ান ফরাসি স্ট্রাইকার জিরুদ।
৮২তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মোরাতা। ডান দিক থেকে ডিফেন্ডার সেসার আসপিলিকুয়েতার ক্রসে হেডে গোলরক্ষককে বোকা বানান এই স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড।
এর আগে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে আলেক্সিস সানচেজ এবং হেরেরার গোলে টটেনহ্যামকে ২-১ গোলে হারিয়ে এফএ কাপের ফাইনাল নিশ্চিত করে হোসে মরিনহোর দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।
ফলে আগামী ১৯ মে একই ভেন্যুতে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মুখোমুখি হবে সাতবারের চ্যাম্পিয়ন চেলসি।

যেসব পেশার নারীরা 'যৌন প্রতারণায়' বেশি জড়ায়!


নিত্য নতুন কৌশলে প্রতারণার ফাঁদ তৈরি করে প্রতারক চক্র। এ ক্ষেত্রে ইদানীং নতুন কৌশল হিসেবে নারীদের ব্যবহার করা হচ্ছে।বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এটি মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। আর নারীদের মাধ্যমে যৌন আবেদনের বিভিন্ন টোপ দিয়ে ফাঁদে ফেলা হচ্ছে তরুণ ও যুবকদের।
সম্প্রতি এ নিয়ে একটি গবেষণা প্রকাশ করেছে ইউনিভার্সিটি অফ উইনচেস্টার। যেখানে পেশাগতভাবে যৌন প্রতারণার কৌশল ও এ প্রতারণা চক্রে যেসব পেশার নারীরা সহজেই যুক্ত হন তা তুলে ধরা হয়েছে।
উনচেস্টার তাদের গবেষণায় বলছে, প্রথমত বিমানের এয়ারহোস্টেস বা বিমানবালা, নারী পাইলট, ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট, ফ্লাইট পার্সাররা যৌন ব্যাপারে একটু উদার হয়ে থাকেন। 
আর তাদের পরেই রয়েছেন আইন পেশার সঙ্গে যুক্ত নারীরা। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে এই পেশার লোকেরা সহজেই মিথ্যা কথা বলায় সবচেয়ে পারদর্শীদের অন্যতম। এই পেশার নারীরা দীর্ঘ সময় ধরে এবং তীব্র মানসিক চাপের মধ্যে কাজ করেন। এবং ছোট ছোট গ্রুপে কাজ করেন। ফলে এঁদের পরস্পরের মধ্যে সহজেই সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ফলে স্বামী বা জীবনসঙ্গীর সাথে এরা সহজেই যৌন প্রতারণা করার সুযোগ পান।
তৃতীয়ত, আর্থিক পরামর্শদাতাদের যৌন প্রতারণার ক্ষেত্রে এগিয়ে রাখা হয়েছে। বলা হচ্ছে এই পেশার নারীরা একেবারে শীর্ষে থাকে। এই নারীদের নৈতিকতা থাকে না বললেই চলে। এই পেশার নারীরা কাজের ফাকে সহকর্মী, বস বা পছন্দের কারো সঙ্গে যৌনমিলন করে মানসিক চাপ মুক্ত হওয়ার চেষ্টা করেন।
চতুর্থত, অভিনয় ও সংগীত শিল্পীরা যৌণ প্রতারণার ক্ষেত্রে খুবই পটু। মুক্ত চিন্তা বা প্রগতিশীলতার নামে তারা চুটিয়ে প্রেম করেন।কর্মক্ষেত্রের সহকর্মীদের সঙ্গে গড়ে উঠে তাদের দারুণ সখ্যতা। কিন্তু সেটা খুব স্বল্প সময়ই স্থায়ী হয়। তারা খুব সহজেই  স্বামী বা জীবন সঙ্গীনির সাথে যৌন প্রতারণা করে থাকেন।
এছাড়া যারা স্বাস্থ্যসেবা সেক্টরে সঙ্গে জড়িত নারী ও ক্রীড়াঙ্গনের বেশিরভাগ ক্রীড়াবিদ তারকা, শ্রদ্ধার ব্যক্তি এবং ভক্তদের ভালোবাসায় সিক্ত হন। ক্রীড়াবিদরা মূলত তাদের শারীরিক সৌন্দর্য এবং সুঠাম দেহের জন্য এতো বেশি মনোযোগ আকর্ষণ করেন। এর ফলে তাদের হাতে প্রায়ই যৌন প্রতারণার লোভনীয় সুযোগ এসে যায়। অনেকেই সে সুযোগ লুফে নেন ক্যারিয়ার ও আর্থিক সুবিধা প্রাপ্তির আশায়।

ফের শেষ ওভারে হার মুস্তাফিজদের


শেষ ওভারে হারের আক্ষেপ আবারও বাড়লো মুস্তাফিজদের। আশা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত জেতাতে পারলেন না বুমরাহ-মুস্তাফিজরা। তাদের কাছ থেকে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন কৃষ্ণাপ্পা গৌতম। ১১ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কার মারে ৩৩ রান করেছেন গৌতম। তার স্ট্রাইক রেট ছিল ৩০০। আর এতেই আবারও জয় হাত ছাড়া হল মুস্তাফিজদের। অথচ শেষ ওভার ছাড়া পুরো ম্যাচেই হার কিপ্টে বোলিং করেছেন মুস্তাফিজ ও বুমরাহ। কিন্তু শেষ হাসি অজিঙ্কা রাহানেদেরই। 
এদিন প্রথম ইনিংসে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৬৭ রান তোলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। জবাবে ২ বল বাকি থাকতেই ৩ উইকেটের জয় পায় রাজস্থান। রাজস্থানের হয়ে সাজু স্যামসন ৫২, স্টোকস ৪০ ও গৌতম ৩৩ রান করেন। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে বুমরাহ ও হার্দিক পান্ডিয়া ২টি এবং মুস্তাফিজ, ক্রনাল পান্ডিয়া ও ম্যাকক্লেনাগেন ১টি করে উইকেট নেন।
এর আগে প্রথমে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন মুম্বাই অধিনায়ক রোহিত শর্মা। কিন্তু শুরুতেই এভিন লুইসের উইকেট হারায় মুম্বাই শিবির। শূন্য রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। লুইসের উইকেট হারানোর ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে বেশি সময় লাগেনি বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। 
সূর্যকুমার যাদব এবং ঈশান কিষাণের চওড়া ব্যাট বড় রানের স্বপ্ন দেখাতে শুরু করে মুম্বাই সমর্থকদের। ৪৭ বলে ৭২ রানের ইনিংস খেলেন যাদব। ডান-হাতি এই ওপেনারের ইনিংসটি সাজানো ছিল ছয়টি চার এবং ৩টি ছয় দিয়ে।
তাল মিলিয়ে ঝড়ো ব্যাটিং করেন কিষাণও। চারটি চার এবং তিনটি ছয়ের সৌজন্যে ৪২ বলে ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। এই দুই ব্যাটসম্যান ছাড়া কোনও মুম্বাই ব্যাটসম্যানই এ দিন বিশেষ কিছু করতে পারেননি।

অধিনায়ক রোহিত শর্মা রানের খাতা না খুলেই ফেরেন প্যাভিলিয়নে। পান্ডিয়া ভাইরাও ব্যাট হাতে নিজেদের ঝলক দেখাতে ব্যর্থ হন। ৭ রান করেন ক্রুনাল এবং ৪ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন হার্দিক। 
শেষের দিকে ২২ রানের ইনিংস খেলে রানকে ভদ্রস্থ জায়গায় নিয়ে যাবার চেষ্টা করেন কাইরন পোলার্ড। রাজস্থানের হয়ে সুযোগ পেয়েই এ দিন বল হাতে জাত চেনালেন জোফ্রে আর্চার। ৪ ওভারে ২৩ রান খরচ করে ৩ উইকেট নেন তিনি। দু'টি উইকেট নেন গত ম্যাচে দলে সুযোগ না পাওয়া ধবল কুলকার্নি। একটি শিকার জয়দেব উনাদকাটের।

উত্তাপ ছড়িয়ে মহাসাগরে ক্ষেপণাস্ত্র-বিরোধী ব্যবস্থা তৈরির পরিকল্পনায় চীন


আন্তর্জাতিক মহলে উত্তাপ ছড়িয়ে নিজেদের সামরিক বাহিনীকে আরও শক্তিশালী করতে ব্যস্ত বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলো। চলছে বাকযুদ্ধ ও ভয়ঙ্করসব মহড়া। আর তারই জের ধরে এবার সামরিক বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, সমুদ্রভিত্তিক ক্ষেপণাস্ত্র-বিরোধী (অ্যান্টি-মিসাইল) ব্যবস্থা গড়ে তুলে চীন তা এশিয়া-প্যাসিফিক ও ভারত মহাসাগরে মোতায়েনের পরিকল্পনা করছে।
জানা গেছে, শীর্ষস্থানীয় পরমাণু শক্তিধর আমেরিকা ও রাশিয়ার অ্যান্টি-মিসাইল প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মেলাতে চীনের এই উদ্যোগ। স্নায়ুযুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে রক্ষা পাওয়ার জন্য চীন এশিয়া-প্যাসিফিকে সমুদ্রভিত্তিক একটি ব্যবস্থা নিয়েও কাজ করছে বলে পর্যবেক্ষকেরা জানিয়েছেন।
চীন ও বিশ্বের বৃহত্তম মহাসাগরের মধ্যে ফার্স্ট আইল্যান্ড চেন নামে অভিহিত বেশ কিছু দ্বীপ রয়েছে। বেইজিং বলছে, আমেরিকা স্নায়ুযুদ্ধের সময় থেকে ফার্স্ট আইল্যান্ড চেন ব্যবহার করে চীনকে ঘিরে ফেলার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। 
পিপলস লিবারেশন আর্মির সেকেন্ড আর্টিলারি কোরের প্রাক্তন সদস্য ও সামরিক বিশেষজ্ঞ সং ঝোংপিং ফনিক্স টেলিভিশনকে বলেন, চীনের সমুদ্রভিত্তিক অ্যান্টি-মিসাইল সিস্টেমের লক্ষ্য তার ভূখণ্ড ও সাগরের স্বার্থ রক্ষা। যেসব স্থানে তার রণতরীগুলো যেতে পারে, সেখানে প্রতিরক্ষাব্যবস্থা মোতায়েন করা হবে। চীন তার বৈদেশিক স্বার্থ রক্ষার জন্য প্রথমে এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চল ও ভারত মহাসাগরের দিকে নজর দেবে। একইসঙ্গে গভীর সমুদ্রে চলাচল করতে সক্ষম একটি নৌবাহিনী গড়ার চেষ্টা করছে চীন। 
তিনি আরও বলেন, আমেরিকা ও অন্যান্য দেশ চীনকে সংযত করার জন্য ইন্দো-প্যাসিফিক কৌশল গ্রহণ করেছে। এর জবাবে চীন অবশ্যই ক্ষেপণাস্ত্র-বিরোধী ব্যবস্থা মোতায়েন করবে।
এদিকে ম্যাকাওয়ের সামরিক বিশেষজ্ঞ ওঙ দং বলেন, চীন নতুন প্রজন্মের সাগরভিত্তিক এইচকিউ-২৬ অ্যান্টি-মিসাইল ব্যবস্থা নির্মাণ করে ফেলেছে। এর পাল্লা ৩,৫০০ কিলোমিটার। এই ক্ষেপণাস্ত্র দেশটির বৃহত্তম ডেস্ট্রয়ারে মোতায়েন করা হতে পারে।

অসুস্থতার কারণে খালেদাকে আদালতে হাজির করা হয়নি

রাজধানীর বকশি বাজারের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে বিচারাধীন জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাজির করা হয়নি। ফলে এ মামলার যুক্তিতর্ক শুনানির তারিখ আবারো পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে তাঁর জামিনের মেয়াদও বাড়ানো হয়েছে।
আজ রবিবার ঢাকার বিশেষ জজ ৫-এর আদালতে কারাগার থেকে খালেদাকে আদালতে হাজির করে যুক্তিতর্ক শুনানি গ্রহণের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু যুক্তিতর্ক শুনানি না হলেও আদালত জামিনের মেয়াদ বাড়িয়ে আগামী ১০ মে দিন ধার্য করেছেন। ওইদিন খালেদাকে আদালতে হাজির করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রাজধানীর বকশি বাজারের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করার জন্য কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। ওই তারিখেও খালেদা জিয়াকে অসুস্থতার কারণে হাজির করা হয়নি। গতকালও কারা কর্তৃপক্ষ আদালতকে জানিয়েছে, খালেদা জিয়া অসুস্থ বিধায় হাজির করা হয়নি।
 জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠানোর পর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় তাঁকে আদালতে আর হাজির করা হয়নি।
গতকাল আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, 'খালেদা জিয়া অসুস্থ থাকায় তাঁকে আদালতে হাজির করা হয়নি। পক্ষান্তরে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া জামিনের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করেন। আদালত জামিনের মেয়াদ বাড়িয়ে দেন।
উল্লেখ্য, এই আদালতেই জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচার হয়। গত ৮ ফেব্রুয়ারি এক রায়ে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন একই আদালত। এরপর থেকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন খালেদা জিয়া।

আইএস ঘাঁটির গণকবরে ২০০ লাশ!

সিরিয়ার রাকায় ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সাবেক ঘাঁটিতে একটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। এই গণকবরে ২০০ মানুষের লাশ পাওয়া গেছে। শনিবার স্থানীয় এক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  
ওই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গণকবরের লাশগুলো জিহাদি ও বেসামরিক লোকদের বলে মনে করা হচ্ছে। 
তিনি জানান, রাকার একটি হাসপাতালের কাছে ফুটবল খেলার মাঠে গণকবরটি পাওয়া গেছে।
এদিকে, রাকা সিভিল কাউন্সিল কার্যালয়ের কর্মকর্তা আব্দাল্লাহ্ আল-এরিয়ান বলেন, ইতিমধ্যে ওই গণকবর থেকে প্রায় ৫০টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গণকবরটিতে প্রায় ২০০ লাশ রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। 
প্রসঙ্গত, সম্প্রতি সিরিয়া ও ইরাকে আইএস-এর দখলকৃত বেশ কয়েকটি জায়গায় গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে।

যে কারণে পায়ের উপর পা তুলে বসবেন না


অনেকেই আছেন যারা পায়ের উপর পা তুলে বসতে পছন্দ করেন। তবে বিজ্ঞানীরা বসার এ ভঙ্গিকে নিরুৎসাহিত করেছেন। কারণ এতে স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি থাকে। বিজ্ঞানীরা জানান, খুব বেশি সময় পায়ের উপর পা তুলে বসলে তা রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয় এবং এটি স্নায়ুরও ক্ষতি করে। 
গবেষণায় দেখা গেছে, যিনি দিনে ৩ ঘণ্টা হাঁটুর উপর আর একটা পা তুলে ক্রস করে বসেন, তাদের শরীর ঝুঁকে যাওয়া, পিঠে ও ঘাড়ে ব্যথার সমস্যা দেখা দেয়।
দীর্ঘক্ষণ পায়ের উপর পা তুলে বসলে উরুর ভেতরের দিকে পেশি ছোট ও বাইরের দিকের পেশি বড় হয়ে যায়। তার ফলে জয়েন্ট পেইন-সহ অন্যান্য সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সেভিয়াকে গুঁড়িয়ে বার্সার কোপা দেল রে জয়


শিরোপা নির্ধারণী লড়াইয়ে রাতে দুর্দান্ত এক জয় তুলে নিয়েছে বার্সেলোনা। নির্ধারিত ৯০ মিনিটে সেভিয়াকে ৫-০ গোলের ব্যবধানে হারায় ভালবার্দের শিষ্যরা। আর তাতেই টানা চতুর্থবারের মতো কোপা দেল রে শিরোপা উঠে বার্সার ঘরে।
এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই দারুণ খেলতে থাকে টিম বার্সা। প্রথমার্ধেই ৩-০ গোলে এগিয়ে যায় ভালবার্দের শিষ্যরা। দ্বিতীয়ার্ধে আরও ২ গোল হজম করে সেভিয়া। 
সেভিয়ার জালে প্রথমার্ধের ১৪ মিনিটে প্রথম বল জড়ান লুইস সুয়ারেজ। কুতিনহোর পাস থেকে গোল করেন তিনি। এরপর ৩১ মিনিটে আর্জেন্টাইন গোলমেশিন মেসি দ্বিতীয় গোল করে স্কোরলাইন ২-০ তে নিয়ে যান। আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা-জোর্দি আলবার সমন্বিত আক্রমণ থেকে পাস পান আর্জেন্টাইন তারকা। দলকে ৩-০ গোলে এগিয়ে নেন সুয়ারেজ, ম্যাচের ৪০ মিনিটে দারুণ এক গোল করেন তিনি। সুবিধাজনক জায়গায় মেসিকে পেয়ে তাকে পাস দেন সুয়ারেজ। এরপর ডি-বক্সের ভেতরে সুয়ারেজকে ফিরতি পাস দেন মেসি। বল জালে জড়াতে কোনো ভুল করেননি উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার। 
তবে এই ম্যাচে সবার চোখ ছিল ইনিয়েস্তার দিকে। বার্সার হয়ে নিজের শেষ ফাইনালকে স্মরণীয় করে রাখতে তার যে একটা গোল দরকার। দ্বিতীয়ার্ধে নেমে সে কাজটিই করেন স্প্যানিশ তারকা। ৫২ মিনিটে তার গোলে ৪-০ তে এগিয়ে যায় বার্সা। এবারও বল বানিয়ে দেন মেসি। আর ম্যাচের ৬৯ মিনিটে ম্যাচের শেষ গোলটি করেন কুতিনহো। পেনাল্টি থেকে গোল করে দলের ব্যবধান ৫-০ তে নিয়ে যান তিনি।
উল্লেখ্য, ১৯৮০ সালের পর কোপা দেল রে ফাইনালে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয় এটি। 

আমি ফ্যাশন করতে খুব পছন্দ করি : শাকিব খান

আমি ফ্যাশন করতে খুব পছন্দ করি। সব ধরনের পোশাক পরলেও তা অনুষ্ঠান এবং সময়ের গুরুত্বের ওপর নির্ভর করে। জিনস, টি-শার্টে ক্যাজুয়াল থাকতে পছন্দ করি। এছাড়াও ফ্যাশন অনুষঙ্গের বিদেশি ব্র্যান্ড কেনেন ইউরোপ আমেরিকা থেকে।
কলকাতার একটি স্থানীয় গণমাধ্যমে নিজের ছবি মুক্তি উপলক্ষে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। সেখানেই তিনি নিজের ফ্যাশন সচেতনতার কথা বলেছেন।
চলচ্চিত্রের পোশাক পরিচ্ছদ নিয়ে বাংলাদেশি জনপ্রিয় এই অভিনেতা বলেন, যে কোনও ছবির ক্ষেত্রেই আমার চরিত্র কেমন সেটা নিয়ে পরিচালকের সঙ্গে আমি বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করি। সেই মতো চরিত্র অনুযায়ী নিজের সাজপোশাক নিয়ে চিন্তাভাবনা করি। চরিত্র অনুযায়ী পোশাক থেকে স্টাইলিং সব ঠিকঠাক না থাকলে তখন কিন্তু আমি ইনপুট দিই। একটু খুঁতখুঁতে আমি।
ফ্যাশন অনুষঙ্গ নিয়ে বলেন, ঘড়ির ক্ষেত্রে রোলেক্স, ট্যাগ হিউয়ের, আরমানি, র‌্যাডো ব্যবহার করি। সানগ্লাসের ক্ষেত্রে প্রাডা পরি। তবে বিদেশি ব্র্যান্ড সাধারণত ইউরোপ, আমেরিকা থেকে কিনি। জুতো এবং স্লিপারের ক্ষেত্রে আরমানি, গুচি পরি। স্নিকার্স অ্যাডিডাসের। আমার প্রিয় অ্যাকসেসারিজ ঘড়ি, সানগ্লাস।
এছাড়াও বলেছেন, তার প্রিয় রঙ সাদা ও কালো।

মাঝ নদীতে নৌকা উল্টে ১৭ জনের মৃত্যু


দক্ষিণ চিনের গুইলিন শহরে মাঝ নদীতে ড্রাগন নৌকা উল্টে ১৭ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পানির স্রোতে অনেকে ভেসে গেছে। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হলেও অনেকে মারা যায়।  শহরের তাও হুয়া নদীতে বাইচ প্রতিযোগিতার প্র্যাকটিস চলছিল। দু'টি নৌকাতে ৬০ জন ছিল। হঠাৎ নৌকা দু'টি নৌকা উল্টে যায়।
চিনের সরকারি সংবাদসংস্থা জিং হুয়া জানিয়েছে, এই ঘটনায় ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ৪০ জনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। সকাল থেকে শুরু হয় উদ্ধার কাজ। রাত ১০ টা নাগাদ উদ্ধার কাজ শেষ হয়। স্থানীয় প্রশাসন এই দুর্ঘটনার জন্য গ্রামবাসীদের দায়ী করে জানিয়েছে, গ্রামবাসীরা কোন অনুমতি ছাড়াই নদীতে বাইচ প্রতিযোগিতার প্র্যাকটিস করছিল।

সিরিয়া নিয়ে মুখোমুখি পরাশক্তিরা


সিরিয়ার বারোয়ারি যুদ্ধের ময়দানে প্রতিনিয়ত উত্তেজনা বাড়ছে। সিরিয়ায় বিবদমান বিভিন্ন পক্ষ একে অপরের অবস্থান নিয়ে উত্তপ্ত হুঁশিয়ারি বিনিময় করলেও, সরাসরি কেউ কারো প্রতি সামরিক আক্রমণে যায়নি। সিরিয়ায় আমেরিকার আক্রমণ নিয়ে যত কথাই বলুক না কেন রাশিয়া, শেষ পর্যন্ত কিন্তু সরাসরি সংঘাতে জড়ায়নি এই দুটি দেশ। বরং এই সপ্তাহে হাওয়া উল্টোদিকেই বইছে। 
রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রামেপর সঙ্গে দেখা করার জন্য প্রস্তুত রয়েছেন বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ। তবে তিনি বলেছেন, এর জন্য আমেরিকার পক্ষ থেকে বিস্তারিত জানার জন্য অপেক্ষা করছে রাশিয়া। আলোচনার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পুতিনকে হোয়াইট হাউসে নিমন্ত্রণ করেছিলেন মার্চ মাসে।  সিরিয়ায় পূর্ব ঘৌটার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত সর্বশেষ শহর দুমায় রাসায়নিক হামলার অভিযোগ ওঠে। সেখানে প্রায় ৭০ জন শ্বাসকষ্টে মারা যায়। অসুস্থ হয় আরো পাঁচশ’র বেশি মানুষ। এর সপ্তাহখানেকের মধ্যেই সিরিয়ার তিনটি রাসায়নিক অস্ত্রভান্ডার লক্ষ্য করে শতাধিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স। জার্মানি ও তুরস্ক এ হামলা সমর্থন করলেও চীন, ইরান, জর্ডান ও ইরাক বিপক্ষে অবস্থান নেয়। রাশিয়া জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠক ডেকে এ হামলার বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব তোলে। বলিভিয়া ও চীন ছাড়া ১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদে আর কেউ প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয়নি।
এদিকে ওই হামলায় আমেরিকার নেতৃত্বাধীন বিমান হামলায় ফ্রান্সের অংশগ্রহণের প্রতিবাদে ফ্রান্স সরকারের দেয়া মর্যাদাপূর্ণ লেজিওঁ দ’নর খেতাব ফিরিয়ে দেন সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ। সম্মাননা ফিরিয়ে দেয়ার সময় আসাদ বলেন, তিনি এমন কোনো দেশের পুরস্কার পরবেন না, যারা আমেরিকার দাস। অবশ্য আসাদকে দেয়া এ খেতাব প্রত্যাহারে ‘আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম’ শুরু হয়েছে, ফরাসি সরকারের এমন ঘোষণার কয়েকদিনের মধ্যে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট নিজেই তার সম্মাননা ফেরত দিলেন।বাবার মৃত্যুর পর ক্ষমতায় বসেই ফ্রেঞ্চ সরকারের কাছ থেকে লেজিওঁ দ’নরের সর্বোচ্চ পদক ‘র্গ্যান্ড ক্রসে’ ভূষিত হয়েছিলেন আসাদ। 
 সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ শুরুর পর থেকে সিরিয়া নিয়ে ইরান এবং আমেরিকা সমপর্কের মধ্যে উত্তেজনাও এখন চরমে। দুটি দেশই সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে একে অপরের উপস্থিতি নিয়ে হুমকি-ধামকি বিনিময় করলেও এখন পর্যন্ত সেটি সামরিক তৎপরতায় গড়ায়নি। সিরিয়ার ময়দানে প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের পক্ষের সেনারা মার্কিন মদতপুষ্ট কুর্দি বাহিনী এবং তাদের বিমান ঘাঁটিতে হামলা করছে। আসাদের পক্ষের সেই সেনাদেরই লক্ষ্য করে আক্রমণ করছে আমেরিকা। যদিও এখন পর্যন্ত তারা ইরানিয়ান রেভুলশনারি গার্ডের ওপর হামলা চালায়নি। ইরানের রেভ্যুলশনারি গার্ড আসাদের পক্ষের যোদ্ধাদের এবং সিরিয়ার পক্ষের সামরিক বাহিনীকে সরাসরি সহযোগিতা করছে। অন্যদিকে সিরিয়ায় নাক গলানো নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে বারবার সতর্ক করে আসলেও এখন পর্যন্ত মাঠ পর্যায়ে ইরানের মদতপুষ্ট যোদ্ধাদের আমেরিকার সৈন্য বা দেশটির সমর্থনে থাকা সেনাদের সরাসরি আক্রমণের কোনো নির্দেশ বা ইঙ্গিত দেয়নি। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রামপ  ইরানের কট্টর সমালোচক জন বল্টনকে জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা হিসেবে নিযুক্ত করেছেন। জাতিসংঘে আমেরিকার দূত নিকি হ্যালি আগুনে ঘি ঢেলেছেন আরও বেশি। তিনি বলেছেন, সিরিয়ার যুদ্ধে ইরানের অনুপ্রবেশ ঠেকানো ট্রামপ প্রশাসনের মূল লক্ষ্যের একটি। মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের মূল শত্রু দেশগুলোর একটি হচ্ছে ইসরাইলে।
ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানাচ্ছে, সিরিয়ার মাটিতে ইরানের বাহিনীকে আক্রমণের আগে ইসরায়েলকে মার্কিন গোয়েন্দারা তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে নেয়ার ব্যাপারে বলেছে। ওয়াশিংটনে আরব সেন্টারের প্রধান জো ম্যাকারন বলেছেন, ‘আমরা এখন দেখছি আগ্রাসী এবং রক্ষণশীল উপদেষ্টাদের পরামর্শে আমেরিকা সিরিয়ার ময়দানে নামছে। ইসরায়েলের ইন্ধনে আমেরিকার ওই যুদ্ধ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেয়ার পরিকল্পনার, যা সমপূর্ণ বিপরীত ‘তবে ট্রামপ নিজে পেন্টাগনকে নিয়ে পরিস্থিতি ঠাণ্ডা রাখার চেষ্টা করছেন। ভবিষ্যতে হয়তো ইসরায়েলের লড়াই তাদের নিজেদেরই করতে হবে,’ বলেন তিনি। এদিকে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বাড়লেও বিশ্লেষকরা মনে করছেন এটা অতিরঞ্জিত।
ইউনিভার্সিটি অব বার্মিংহামের প্রফেসর স্কট লুকাস বলেন, দু’পক্ষের (ইরান ও আমেরিকা) মধ্যে চূড়ান্ত সংঘাতের কোনো সুযোগ নেই। কেননা দু’পক্ষই যা পাবে, তার চেয়ে অনেক বেশি দিতে হবে। আপনাকে এর জন্য প্রচুর সমপদ নিয়োগ করতে হবে। এবং কেউই জানেনা এটা কতোদূর গড়াবে!
বিশ্লেষকরা বলছেন, উত্তেজনা টানটান থাকলেও সিরিয়া নিয়ে শেষ পর্যন্ত নিজেদের মধ্যে সামরিক কোনো পদক্ষেপ নেবে না আমেরিকা, ইরান এবং রাশিয়ার মতো পরাশক্তিগুলো।

কলকাতার গণমাধ্যমে চালবাজের 'সমালোচনা'


কলকাতার নির্মাতা জয়দীপ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত 'চালবাজ' ছবিটি কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে। আগামী সপ্তাহে বাংলাদেশেও ছবিটি মুক্তি কথা রয়েছে। ছবিতে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শাকিব খান। এছাড়াও আছেন কলকাতার অভিনয়শিল্পী শুভশ্রী গাঙ্গুলি, আশিস বিদ্যার্থী ও রজতাভ দত্ত। ছবিটি মুক্তি পেতে না পেতেই এর বিরুদ্ধে নকলের অভিযোগ উঠেছে। ছবিটি পর্যালোচনা করে কলকাতার আনন্দলোক লিখেছে:
অনেকগুলি বলিউড রোম্যান্টিক-কমেডি ছবির থেকে কিছু-কিছু ঘটনা তুলে যদি একটা গল্প বানানোর চেষ্টা হয়, আর সেটা যদি মিশে যায় দুর্বল অভিনয় ও একই ধরনের সংলাপের সঙ্গে, তাহলে যা তৈরি হয়, সেটাই হল ‘চালবাজ’।
                                চালবাজ ছবির দৃশ্যে শাকিব-শুভশ্রী
কাকার বাড়িতে বড় হওয়া শ্রীজাতার (শুভশ্রী) বিয়ে ঠিক করা হয় তার উচ্চশিক্ষার স্বপ্নকে থামিয়ে দিয়ে। বিয়ের রাতেই বাড়ি থেকে পালিয়ে, লন্ডনে পুরনো প্রেমিকের কাছে চলে যায় শ্রীজাতা। গিয়ে জানতে পারে সেই ছেলেটির এক বিদেশিনী প্রেমিকা আছে। বিয়ে এবং বিদেশে পিএইচডি করার স্বপ্ন দুটোই ভেঙে যায় শ্রীজাতার। এমন সময়েই তার পরিচয় হয় টাকা রোজগারের জন্য গাড়ি চালক থেকে রাঁধুনী, সব রকম কাজ করা রাজার সঙ্গে (শাকিব খান)। রাজা ‘টাকার জন্য সব করতে পারে, কিন্তু নিজের কাছে নিজে ছোট হয়ে যায় এমন কিছু করবে না’ (ছবিতে শাকিবের সংলাপ)। শ্রীজাতা ও রাজা একসঙ্গে দেশে ফিরে এলে শুরু হয় নানা ঘটনা। শ্রীজাতার বাড়ির লোকজন রাজাকেই শ্রীজাতার বর ভেবে বসে।
চেনা ছকে বাঁধা হালকা মেজাজের রোম্যান্টিক কমেডি ছবি হতেই পারত ‘চালবাজ’। আর সেটা হলেই হয়তো ভাল হত। ছকের বাইরে বের হওয়ার জন্য কিছু দুঃখের মুহূর্ত ঢোকাতে গিয়েই তাল কাটল ছবির।
প্রথমত, অতিরিক্ত দীর্ঘ হয়ে যাওয়ায় মাঝে বেশ কিছু অংশ খুবই অপ্রয়োজনীয় লাগে। দ্বিতীয়ত, দুর্বল অভিনয়ের কারণে দৃশ্যগুলি ঠিক বিশ্বাসযোগ্যও হয়ে ওঠে না। শাকিবের মুখের অভিব্যক্তির কোনও বদল ঘটে না খুশির বা দুঃখের দৃশ্যে। গ্ল্যামার কুইনের অবতার থেকে বেরিয়ে আসার কোনও চেষ্টা দেখা যায় না শুভশ্রীর অভিনয়েও। রাজার সহায়কের ভূমিকায় রজতাভর অভিনয় স্বভাবতই ভাল।
এক কাপ চা বানাতেও জানে না সে, অথচ এক ব্যাগ হাতা-খুন্তি নিয়ে গোয়া থেকে লন্ডন চলে যায় রাঁধুনী হতে। রজতাভর কমিক টাইমিং নিয়ে আলাদা করে কিছু বলা নিষ্প্রয়োজন। শ্রীজাতার কাকার ভূমিকায় আশিস বিদ্যার্থীও ভাল।
সবশেষে বলা যায়, গল্পটি থেকে অনেক অংশ বাদ দিয়ে, হাসির সংলাপগুলি আরও বুদ্ধিদীপ্ত করে, আরও সহজভাবে গল্পটি বললে হয়তো আর একটু ভাল লাগত।

সিডনির রাস্তায় অদৃশ্য ব্যাট হাতে ওয়ার্নার


বল বিকৃতির কাণ্ডে এক বছরের জন্য নির্বাসনে অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার। বাঁ হাতি এই তারকা ব্যাটসম্যান এখন দিন কাটাচ্ছেন অবসরে। আসলে অবসর নয়, এখনও যেন বাইশ গজের যুদ্ধই মনে মনে লড়ে চলেছেন তিনি। তারই প্রমাণ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এই ছবিতে। 
আসলে একটি নয়, দু’টি ছবি। সেই ছবিই জানান দিচ্ছে ওয়ার্নারের মনের অবস্থা। ছবিগুলিতে সিডনির রাস্তায় ব্যাটিং করতে করতে হাঁটতে দেখা গিয়েছে ওয়ার্নারকে। 
ওয়ার্নারের স্ত্রী ক্যান্ডিস ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন, যাতে দেখা যাচ্ছে ওয়ার্নার এখন রাজমিস্ত্রি হয়ে গিয়েছেন। আইপিএল'র ১২ কোটি টাকার পরিবর্তে স্বপ্নের বাড়ি বানাতে ব্যস্ত এখন ওয়ার্নার। 
কিন্তু মনের ভিতরে থাকা কষ্ট লুকিয়ে রাখা সম্ভব হয় না। মেয়ে আইভি ও ইন্ডিকে নাচের ক্লাসে নিয়ে যাচ্ছিলেন ওয়ার্নার ও ক্যান্ডিস। তখনই অদৃশ্য ব্যাট হাতে 'শ্যাডো' করছিলেন ওয়ার্নার। বোঝাই যাচ্ছে, ওয়ার্নার মোটেও সুখে নেই। ভিতরে ভিতরে রক্তাক্ত তিনি। আপাতত এক বছর এই লড়াই লড়তে হবে তাকে। 
বাইশ গজের লড়াই এখন ছড়িয়ে পড়েছে মাঠের বাইরেও। নিজেকে প্রমাণ করতে মরিয়া ওয়ার্নার এখন দিন গুনছেন, তা বলাই বাহুল্য। ক’দিন আগের সাংবাদিক সম্মেলনের কান্না ভুলে তাই তিনি শুরু করে দিয়েছেন নতুন লড়াই। রাস্তাতেই মনে মনে মুখোমুখি হয়ে পড়েছেন অদৃশ্য বোলারের।

পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা উনের

পরমাণু অস্ত্র ও আন্ত মহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা স্থগিত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ঐতিহাসিক বৈঠক সামনে রেখে  এ ঘোষণা দেন তিনি। তাঁর এ ঘোষণাকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ), যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া, চীন ও জাপান তাত্ক্ষণিকভাবে স্বাগত জানিয়েছে। তবে কিমের এ স্থগিতাদেশের ‘স্থায়িত্বকাল’ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন অনেক বিশ্লেষক।
উত্তর কোরিয়ার সরকারি সংবাদ সংস্থা-কেসিএনএর খবরে বলা হয়, উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্র ও আন্ত মহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ রাখবে। কিম জং উন বলেছেন, আর কোনো পরীক্ষার দরকার নেই, কারণ উত্তর কোরিয়ার পরমাণু সক্ষমতা পরীক্ষিত। এ ছাড়া পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষার একটি স্থাপনা বন্ধের ঘোষণা দিয়ে উন বলেছেন, উত্তরাঞ্চলের ওই স্থাপনার মিশন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। কেসিএনএ জানায়,ক্ষমতাসীন দলের কেন্দ্রীয় কমিটির এক বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেন উন।
আগামী সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন এবং জুনের মধ্যে ট্রাম্পের সঙ্গে ঐতিহাসিক বৈঠকে বসার কথা রয়েছে উনের। এ দুটি দেশই দীর্ঘদিন ধরে উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি থেকে সরে আসার জন্য চাপ দিচ্ছে এবং উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে তাদের মূল বিরোধও এই পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে। তাত্ক্ষণিক এক টুইটার বার্তায় ট্রাম্প লেখেন, কিম জং উন এক বার্তায় জানিয়েছেন, উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্র ও আন্ত মহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ রাখবে। এ ছাড়া পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষার একটি স্থাপনা বন্ধ করা হবে। এটি সবার জন্য বড় অগ্রগতি। আরেক টুইট বার্তায় ট্রাম্প লেখেন, ‘এটা উত্তর কোরিয়া ও বিশ্বের জন্য একটা সুখবর; বড় অগ্রগতি। আমাদের বৈঠকের জন্য এগিয়ে চলুন।’
দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট দপ্তরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, উনের সঙ্গে ট্রাম্প ও মুন জায়ে ইনের আসন্ন বৈঠক ফলপ্রসূ করার ক্ষেত্রে উত্তর কোরিয়ার এ সিদ্ধান্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। উত্তর কোরিয়ার সবেচেয়ে বড় মিত্র চীন এক বিবৃতিতে বলেছে, উনের এ সিদ্ধান্ত কোরীয় উপদ্বীপের পরিস্থিতির উন্নতি ঘটাবে।
মিশ্র প্রতিক্রিয়া এসেছে জাপানের কাছ থেকে। প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে স্বাগত জানালেও দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, উত্তর কোরিয়া মাঝারি ও স্বল্পমাত্রার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর ব্যাপারে কিছু বলেনি।
উল্লেখ্য, উত্তর কোরিয়া মাঝারি কিংবা স্বল্পমাত্রার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালালে তা জাপানের ভূখণ্ডের ওপর দিয়েই যায়।
স্থগিত রাখার ঘোষণা দিলেও উন এটা পরিষ্কার করেননি যে উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি থেকে সরে আসবে কি না। এ কারণে অনেকেই মনে করেন, উনের এ ঘোষণা সাময়িক।
যুক্তরাষ্ট্রের ট্রয় ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ডেনিয়েল পিংকস্টোন বলেন, নিশ্চিতভাবেই উনের সিদ্ধান্ত ইতিবাচক। কিন্তু পরমাণু অস্ত্র বিস্তার চুক্তির প্রতি উত্তর কোরিয়ার যে প্রতিশ্রুতি রয়েছে, তা পূরণে এ সিদ্ধান্ত যথেষ্ট নয়।
সামরিকবিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইসিস গ্রুপের গবেষক ক্রিস্টোফার গ্রিন বলেন, উনের এ ঘোষণাকে পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি থেকে সরে আসার প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে দেখার কোনো সুযোগ নেই। এটা শুধু স্থগিতাদেশ, যেখানে পুনরায় শুরু করার পথ খোলাই আছে।
অনেকের প্রশ্ন, উন আগ বাড়িয়ে কেন এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিলেন? এ ব্যাপারে ফেডারেশন অব আমেরিকান সায়েন্টিস্টসের গবেষক অঙ্কিত পাণ্ডে বলেন, ‘উত্তরটা খুবই সহজ। ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকে বসা উনের জন্য অনেক বড় একটা উপহার। কারণ উনের বাব-দাদা কারো এ অর্জন নেই। এ ছাড়া পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি স্থগিত রাখলে উত্তর কোরিয়ার তো কোনো সমস্যা নেই। বরং ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক সফল হলে উত্তর কোরিয়া অনেক কিছুই পেতে পারে।