Hot!

টেলিভিশনে রাত ১০টার খবর পড়লেন চঞ্চল ও জয়া


চলচ্চিত্র ‘দেবী’। এই ছবিতে প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাসের বিখ্যাত চরিত্রে মিসির আলিরূপে চঞ্চল চৌধুরীকে দেখা যাবে। অন্যদিকে, অভিনয়ের পাশাপাশি জয়া আহসান আছেন প্রযোজক হিসেবেও। ঢালিউডের আলোচিত এই ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে আগামী ১৯ অক্টোবর। এরইমধ্যে বেশ জোরেশোরেই চলছে ‘দেবী’র প্রমোশনের কাজ। আর তারই অংশ হিসেবে সিনেমাটি মুক্তির আগে দেখা গেল অভিনব এক কৌশল। ‘দেবী’ সিনেমা প্রচারের জন্য খবর পড়লেন চঞ্চল চৌধুরী ও জয়া আহসান। বুধবার রাত ১০টায় বেসরকারি স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল মাছরাঙার পর্দায় দর্শকরা খবর দেখার জন্য বসলে হঠাৎ করেই দেখা যায় এই দুই তারকাকে।
চঞ্চল চৌধুরী কিংবা জয়া আহসানকে দেখে একবারের জন্যও মনে হয়নি তাঁরা পেশাদার সংবাদপাঠক নন। পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তাঁরা একে একে বলে যাচ্ছিলেন দেশের রাজনৈতিক অবস্থার খবর, জাতীয় পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ। 
এ প্রসঙ্গে জয়া আহসান জানান, ‌‌‌‌‌‌‘আমাদের মার্কেটিং কনসালটেন্টের পরিকল্পনা অনুযায়ীই আমরা সবাই মিলে সংবাদপাঠের বিষয়টি চূড়ান্ত করি। আমাকে কোনো ধরনের দুশ্চিন্তাই করতে হয়নি। যথেষ্ট মানসিক প্রস্তুতি নিয়েই নিউজরুমে গিয়েছি।
পাশাপাশি চঞ্চল চৌধুরী জানান, ‘সংবাদপাঠের পরিকল্পনাটি বেশ অভিনব। সংবাদকর্মীরা দায়িত্বশীলতার সাথে জনগণের জন্য প্রতিনিয়ত সংবাদ তৈরি করেন, সংবাদ পাঠকরাও সে দায়িত্ব থেকে নিজেদের আসনে বসে ক্যামেরায় চোখ রেখে সংবাদ পড়েন। এতদিন বিষয়গুলো দেখে এসেছি, এবার স্বশরীরে অনুধাবন করলাম। এই অভিজ্ঞতা কখনো ভুলবার নয়। 
অন্যদিকে, দর্শকদের মধ্যে চঞ্চল-জয়ার এই অভিনব কৌশল বেশ আলোড়ন ফেলেছে। বিভিন্ন তারকাদের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দর্শক তাদের নিয়ে পোস্ট দিচ্ছেন, সাধুবাদ-শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। মিশু চৌধুরী তার ফেসবুকে লিখেছে, এই রকম নিউজ আমি প্রতিদিন দেখতে চাই। জয়া আপার জয়কার। জয়তু জয়া আপা এবং চঞ্চল ভাই। চলুন সবাই মিলে হলে গিয়ে দেবী সিনেমা দেখি।
রাতিন রা'আদ লেখেন, প্রমোশনকে একেবারে অন্য লেভেলে নিয়ে গেলেন জয়া আহসান এবং চঞ্চল চৌধুরী! দেবীর প্রমোশনে মাছরাঙা চ্যানেলের আজ রাত ১০টার সংবাদ পড়েছেন দু'জন! 
মাহফুজ হক প্রিন্স লিখেছে, যা আগে ঘটেনি। সিনেমা প্রমোশনের নতুন দিক। ভাল্লাছে।
আলোচিত এই সিনেমাটি রীতিমতো নতুন এক মাইলস্টোন সৃষ্টি করল বাংলাদেশের সিনেমাপাড়ায়। দর্শকরাও প্রমোশনের অভিনব এই কৌশলকে গ্রহণ করেছেন ইতিবাচকভাবেই। চঞ্চল-জয়ার পাশাপাশি পুরো ‘দেবী’ টিমকেই তারা দিচ্ছেন উৎসাহ, চলছে সিনেমাটির বন্দনা।