Hot!

'দাঁত ব্রাশ করার পর মাঢ়ি থেকে রক্ত'


আপনার দাঁত ব্রাশ করার পর কি কিছুটা রক্তপাত নিয়মিত বিষয় হয়ে উঠেছে? উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে বুঝতে হবে আপনার মাঢ়ির রোগ হয়েছে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।
মাইল্ড গাম ডিজিজ বা জিনজিভিটিস একটি ক্রনিক রোগ, যা মাঢ়িতে ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণের কারণে হয়ে থাকে। এছাড়া দাঁতেও প্লাক তৈরি করতে পারে এ ধরনের ব্যাকটেরিয়া। এতে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে পড়ে।
দাঁতের মাঢ়ির রোগ প্রায়ই ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণের কারণে হয়ে থাকে। এতে মাঢ়ির কোনো অংশে প্রদাহ সৃষ্টি হয় এবং মাঢ়ি ফুলে যায়। তবে এতে প্রাথমিকভাবে তেমন ব্যথা হয় না।
মাঢ়ির এ রোগ থেকে রক্তপাত শুরু হয় যখন ছোট ছোট প্রদাহ ও ফুলা অংশে ব্রাশের আঘাত লাগে। প্রাথমিকভাবে এতে সেভাবে ব্যথা না লাগলেও তা থেকে রক্তপাত শুরু হয়।
অনেক মানুষই দাঁতের এ সমস্যাকে সেভাবে পাত্তা দেন না। এতে দাঁতের রক্তপাত অনেকটা স্বাভাবিক বিষয় বলেই গণ্য করা হয়। ফলে পরিস্থিতি যখন জটিল হয়ে যায় তখন তা নিরাময় করাও দুরূহ হয়ে যায়।
এ বিষয়ে মেনস হেলথ পরামর্শক মার্ক এস. উলফ ডি.ডি.এস. বলেন, আপনার কখনোই খারাপ পরিস্থিতিতে নিয়ে যাওয়া উচিত নয়। এতে আপনার দাঁত হারাতে হতে পারে কিংবা আরও বড় কোনো সমস্যা হতে পারে।
গবেষকরা জানাচ্ছেন, মাঢ়ির সমস্যা শুধু মুখেই সীমাবদ্ধ থাকে না। এটি হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায় এবং ডায়াবেটিস ও স্ট্রোকের সম্ভাবনাও সৃষ্টি করে।
কিভাবে দাঁত ও মাঢ়ির সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করা সম্ভব? এ প্রসঙ্গে বিশেষজ্ঞরা বলেন, মাঢ়ি সুস্থ রাখার একমাত্র উপায় হলো মুখের পরিচ্ছন্নতা ঠিক রাখা। আপনি প্রতিদিন দুইবার বরে ব্রাশ ও ফ্লস করে মাঢ়ি সুস্থ রাখতে ও দাঁত নিরাপদ রাখতে পারেন।
দাঁত সুস্থ রাখার উপায়টি সহজ হলেও বহু মানুষ এ সহজ কাজটিই করতে পারেন না। এ কারণে দাঁতের ও মাঢ়ির সমস্যা সৃষ্টি হয়। তবে দাঁতে যদি কোনো সমস্যা সৃষ্টি হয় তাহলে তা আর এভাবে কাজ হবে না। এজন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
এছাড়া আপনার দাঁতে যদি ঠাণ্ডা কিংবা গরমে শিরশির অনুভূতি হয়, দাঁত থেকে রক্ত ঝরে কিংবা ব্যথার অনুভূতি হয় তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। এছাড়া দাঁতে যদি ক্যাভিটি সমস্যা থাকে তাহলে প্রতি ছয় মাস পর পর দন্তচিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।